Banglar TV 71
জাতীয়

পুলিশের এক উজ্জল নক্ষত্র ডিআইজি হাবিবুর রহমান।

মোঃসুরুজ।স্টাফ রিপোর্টার।বাংলার টিভি৭১।আপডেটঃ২৩ শে জুন ২০২১ইং।

ঢাকাঃ হাবিবুর রহমান(জন্ম ১ জানুয়ারি ১৯৬৭) বাংলাদেশ পুলিশের এর একজন কর্মকর্তা। বর্তমানে তিনি ঢাকা রেঞ্জ ডিআইজি (উপ মহাপরিদর্শক) হিসেবে বাংলাদেশ পুলিশে দ্বায়ীত্বরত রয়েছেন। এর পুর্বে তিনি ঢাকাস্থ সদরদপ্তরে উপ মহাপরিদর্শক (প্রশাসন-ডিসিপ্লিন) হিসেবে দায়িত্বরত ছিলেন। পুলিশি দায়িত্ব পালনের পাশাপাশি সমাজ ও মানুষের জন্য কাজ করা ব্যতিক্রমধর্মী চিন্তা ও ভূমিকা তাকে দিয়েছে বিশেষ খ্যাতি। তিনি বাংলাদেশ কাবাডি ফেডারেশান এর সাধারণ সম্পাদক এবং এশিয়ান কাবাডি ফেডারেশান এর সহ-সভাপতি।

উল্লেখযোগ্য কর্ম

সাভার বেদে পল্লীর জীবন বদলে দেয়া, হিজড়া সমাজকে আলোর পথে আনা আদি নিবাস।

শিক্ষাজীবনঃ হাবিবুর রহমানের শিক্ষা জীবন শুরু হয় গোপালগঞ্জের এর চন্দ্রদিঘলীয়া মোল্লাপাড়া সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে। ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষা ও গবেষণা ইনিষ্টিটিউট থেকে তিনি স্নাতোকোত্তর ডিগ্রী লাভ করেন। এরপর তিনি বিসিএস পরিক্ষায় অংশ গ্রহণ করেন এবং বাংলাদেশ সিভিল সার্ভিসের পুলিশ ক্যাডারের জন্য মনোনীত হন।

কর্মক্ষেত্রঃ ১৯৯৮ সালের ২২ ফেব্রুয়ারি ১৭তম বিসিএস পরীক্ষার মাধ্যমে তিনি সহকারী পুলিশ সুপার হিসেবে বাংলাদেশ পুলিশে যোগদান করেন। এরপর বাংলাদেশ পুলিশ এর বেশ কিছু গুরুত্বপুর্ণ পদে পর্যায়ক্রমে দায়িত্ব পালন করেন। তিনি ঢাকা জেলায় পুলিশ সুপারিন্টেন্টে হিসেবে কাজ করেন। অতঃপর পদোন্নতিক্রমে বাংলাদেশ পুলিশ সদরদপ্তরে অতিরিক্ত সহকারী মহাপরিদর্শক (সংস্থাপন) হিসেবে পদস্থ হন। অতঃপর তিনি উপমহাপরিদর্শক পদে পদোন্নতি লাভ করেন।

অন্যান্য কার্যক্রমঃ হাবিবুর রহমান বাংলাদেশ পুলিশ মুক্তিযুদ্ধ জাদুঘর প্রতিষ্ঠার পেছনে ভূমিকা পালন করেন এবং সভাপতি হিসেবে দায়িত্ব পালন করছেন।

হাবিবুর রহমান সাভারে বেদে পল্লীর সমাজ ব্যবস্থা উন্নয়নে কাজ করেছেন। সেখানে স্কুল, কম্পিউটার ট্রেনিং সেন্টার, গাড়ি চালনা প্রশিক্ষণ কেন্দ্র ও বুটিক হাউসসহ নানা প্রতিষ্ঠান গড়ে তুলতে ও বাল্য বিবাহ রোধে ভূমিকা পালন করেছেন।

তিনি হিজড়াদের সামাজিক বৃত্তিতে পুনর্বাসনের ব্যবস্থা করেন। হিজড়া ও পিছিয়ে পড়া জনগোষ্ঠীর জীবন-মান উন্নয়নের লক্ষ্যে ‘উত্তরণ কর্ম-সংস্থান প্রশিক্ষণ’ কর্মসূচি চালু করেন এবং উত্তরন ফাউন্ডেশন নামক সংস্থা প্রতিষ্ঠা করে এর মাধ্যমে তাদের সাবলম্বী করার চেষ্টা করে যাচ্ছেন।

খেলাধুলাঃ হাবিবুর রহমান বাংলাদেশ কাবাডি ফেডারেশনের সাধারণ সম্পাদক হিসেবে দায়িত্ব পালন করছেন।এছাড়া তিনি জাকার্তায় অনুষ্ঠিত এশিয়ান গেমসের আসরে ‘এশিয়ান কাবাডি ফেডারেশনের ভাইস প্রেসিডেন্ট’ হিসাবে নির্বাচিত হয়েছেন।

লেখক হিসেবে হাবিবুর রহমানঃ বাংলাদেশের স্বাধীনতা যুদ্ধে পুলিশ বাহিনীর অবদান ও ঢাকায় তাদের প্রথম প্রতিরোধ বিষয়ক ঘটনা নিয়ে তিনি “মুক্তিযুদ্ধে প্রথম প্রতিরোধ” নামে একটি বই লিখেছেন।

পুরস্কার ও সম্মাননা প্রাপ্তিঃ তিনি প্রশংসনীয় ও কৃতিত্বপূর্ন কাজের জন্য বাংলাদেশ পুলিশের সর্বোচ্চ রাষ্ট্রীয় স্বীকৃতি “বাংলাদেশ পুলিশ পদক (বিপিএম)” লাভ করেন। এছাড়া “রাষ্ট্রপতি পুলিশ পদক (পিপিএম)”সহ পুলিশ সপ্তাহ ২০১৭ উপলক্ষে ২০১৬ সালে প্রশংসনীয় ও ভাল কাজের স্বীকৃতি হিসেবে তাকে আইজিপি’স ব্যাজ প্রদান করা হয়। তিনি সর্ব মোট তিনবার বাংলাদেশ পুলিশ পদক (বিপিএম) পেয়েছেন। এবং দুই বার প্রেসিডেন্ট পুলিশ পদক (পিপিএম) সেবা পেয়েছেন। সেবা, সাহসিকতা ও বীরত্বপূর্ণ ভূমিকার জন্য পুলিশ সপ্তাহে পদক দেওয়া হয় যা বিপিএম এবং পিপিএম নামে পরিচিত। প্রথমটি বাংলাদেশ পুলিশ পদক এবং পরেরটি রাষ্ট্রপতি পুলিশ পদক।

Related posts

” ঈদ” উদযাপন যেন সংক্রমণ বৃদ্ধির উপলক্ষ না হয় : প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেছেন ।

সোহাগ পাটোয়ারি

বিধিনিষেধ অমান্য: চতুর্থদিনে রাজধানীতে ঢাকাতে গ্রেপ্তার ৬১৮ ।

সোহাগ পাটোয়ারি

“বাংলার টিভি ৭১” ব্যবস্থাপনা পরিচালক,১০ ও ১৩ জুলাই রাতে অসহায়দের খাবার বিতরণ করেন

সোহাগ পাটোয়ারি

Leave a Comment

Translate »